জেনে নিন ডেঙ্গুজ্বর সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ ১০ তথ্য

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গুজ্বরের প্রকোপ কিছুটা বেড়েছে। তবে গত বছরের তুলনায় তা কম। তবে ডেঙ্গুজ্বর নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই।

১. সাধারণত ডেঙ্গুর লক্ষণ হচ্ছে জ্বর। ১০১ ডিগ্রি থেকে ১০২ ডিগ্রি তাপমাত্রা থাকতে পারে। জ্বর একটানা ছাড়াও ঘাম দিয়ে জ্বর আসতে পারে।

এ ছাড়া শরীরে ব্যথা, মাথাব্যথা, চেখের পেছনে ব্যথা এবং চামড়ায় লালচে দাগ হতে পারে। তবে এসব উপসর্গ না থাকলেও ডেঙ্গু হতে পারে।

২. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এবিএম আবদুল্লাহ বলছেন, এখন ডেঙ্গুর সময়, তাই অবহেলা করা উচিত নয়। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

৩. জ্বর হলে অবশ্যই আপনাকে বিশ্রামে থাকতে হবে। সরকারের কমিউনিক্যাবল ডিজিজ কন্ট্রোল বা সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ বিভাগের অন্যতম পরিচালক ড. সানিয়া তাহমিনা বলেন, জ্বর হলে বিশ্রামে নিতে হবে। এ সময় দৌড়াদৌড়ি করা যাবে না ও পরিশ্রমের কাজ করবেন না।

৪. জ্বর হলে প্রচুর পরিমাণে তরল জাতীয় খাবার খেতে হবে। ডাবের পানি, লেবুর শরবত, ফলের জুস এবং খাবার স্যালাইন খেতে হবে। এ ছাড়া চাহিদামাফিক প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে।

৫. জ্বর হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করবেন।

৬. ডেঙ্গু হলে প্লাটিলেট কাউন্ট নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। বিষয়টি চিকিৎসকের ওপর ছেড়ে দেয়াই ভালো।

৭. অনেকে মনে করেন ডেঙ্গু হলেই হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে। ডেঙ্গুজ্বরের তিনটি ভাগ রয়েছে। এ ভাগগুলো হচ্ছে- ‘এ’, ‘বি’ এবং ‘সি’। এই ক্যাটাগরি দেখে চিকিৎসক সিদ্ধান্ত নেবেন আপনি ভর্তি হবে কিনা।

৮. সাধারণত জুলাই থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরের প্রকোপ বাড়ে। কারণ এ সময়টিতে এডিস মশার বিস্তার ঘটে।

৯. ডেঙ্গুজ্বরের জন্য দায়ী এডিস মশা, যা অন্ধকারে কামড়ায় না। সাধারণত সকালের দিকে এবং সন্ধ্যার কিছু আগে এডিস মশা তৎপর হয়ে ওঠে।
১০. এডিস মশা সাধারণত ডিম পাড়ে স্বচ্ছ পানিতে। কোথাও যাতে পানি তিন থেকে পাঁচ দিনের বেশি জমা না থাকে সে দিকে খেয়াল রাখুন।

তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *