আর্মেনিয়াকে অস্ত্র দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার ইরানের

নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলকে কেন্দ্র করে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে রোববার থেকে সংঘাত চলছে।এরই মধ্যে সীমান্তে আর্মেনিয়াকে অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামাদি সরবরাহের অভিযোগ উঠেছে ইরানের বিরুদ্ধে।তবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদ মাধ্যম ইয়েনি শাফাক।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইদ খাতিবঝাদে বলেন, সীমান্ত দিয়ে যে পণ্যগুলো অতিক্রম করে তা সতর্কতার সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে ইরান।

তেহরান এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ইরান কোনো ধরনের অস্ত্র ও গোলাবারুদ স্থানান্তর অনুমোদন করে না। ইরানের সঙ্গে প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বেসামরিক পণ্য অতিক্রম করে।

এর আগে আজারবাইজানে ৪ হাজার যোদ্ধা পাঠানো অভিযোগ করেছিল আর্মেনিয়া। তবে আজারবাইজানের পক্ষ থেকে তা খারিজ করে দেয়া হয়। যদিও সংঘাতের মধ্যেই তুর্কি প্রেসিডেন্ট আজারবাইজানের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন।

রোববার থেকে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া সংঘাতে জাড়িয়ে পড়ে। দুই দেশের মধ্যে চলা তৃতীয় দিনের সংঘর্ষে অন্তত ৮৪ সেনাসদস্যসহ ৯৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিহতদের মধ্যে ১১ জন বেসামরিক লোকও রয়েছে।

সংঘর্ষে দুই শতাধিক সেনা আহত হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যা নাগাদ উভয়পক্ষ পরস্পরের বিরুদ্ধে ভারী গোলাবর্ষণ অব্যাহত রাখে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *